কারবালার শোক গাথা-১

৬১ হিজরীর ঐ কারবালায়

নবী পুরী কাঁদে পানি পিপাসায়।।

এক ফোটা পানি দেয় নি তারা

ছোট্ট শিশু আসগারের গলায়।  

ঐ পানির জন্যে সবার বুক জ্বলে যায়

তাই দেখে আসগার অস্থির দোলায়।।

পানির পিপাসায় আত্মহারা

তাইতো সে দোলা থেকে নিজেকে ফেলায়।

ঐ আসগারকে নিয়ে হোসাঈন আমার

তাদের কাছে গিয়ে পানি চায় ধার।।

পানির বদলে কাফেরেরা

তীর চালায় ছোট্ট আসগারের গলায়।

ঐ রক্ত নিয়ে হোসাঈন আকাশ পানে চায়

আকাশ বলে হোসাঈন মাফ কর আমায়।।

ঐ রক্ত যদি আকাশে দাও

দিব না বৃষ্টি আর ঐ দুনিয়ায়।

ঐ রক্ত নিয়ে হোসাঈন জমিনে তাকায়

জমিন বলে হোসাঈন মাফ কর আমায়।।

ঐ রক্ত যদি জমিনে দাও

ফসল হবে না আর কোন জায়গায়।

অবশেষে হোসাঈন নিজের মুখে

রক্তগুলোকে নিলেন মেখে।।

আমার হোসাঈনের কি যে জ্বালা

জানে শুধু সেই মহান খোদায়।

ঐ আসগারকে দাফন দেয় কারবালায়

তার লাশে আবার বর্ষা চালায়।।

আসগার আমার আমার দেখ কত অসহায়

দ্বিতীবার তার লাশকে উঠায়।

হে প্রভূ মোদের এই কামনা

যেন তাদের দুঃখ ছাড়া দুঃখ পাই না।।

তাদের সুখেতে আমরা সুখী

তাদের শোকেতে অশ্রু ঝড়ায়।

সূত্র: http://www.islamibd.com/2009/04/2009-04-12-16-03-02.html