পবিত্র ঈদে গাদিরের শুভেচ্ছা

বিসমিল্লাহির রাহমানীর রাহীম
সালামুন আলাইকুম
পবিত্র ঈদে গাদিরের শুভেচ্ছা: এই ঈদ মুহাব্বাতের ঈদ, মাওলায়ে কায়েনাত ইমাম আলী (আ:) এর ইমামত ও বেলায়াতের ঈদ, এই ঈদে সবার প্রতি জানাই মোবারকবাদ।
এই দিনে  নবী করিম (স) লা‌খো হাজিদের  উপস্থিতিতে গাদির নামক স্থানে মাওলা আলী (আ:) এর হাত উত্তোলন করে উচ্চকন্ঠে বলেন: "আমি যার মাওলা এই আলী তার মাওলা।"

এই মহান দিনে হাজিগণ ইমাম আলী (আ:) এর সাথে বায়াতের শেষে এবং এই খবর প্রকাশের পর হারেস বিন নোমান ফাহরী নামক এক ব্যক্তি নবীজির কাছে যায় সেখানে অন্যান্য সাহাবাগণও ছিলেন সে বলে: হে মুহাম্মাদ আমাদেরকে নির্দেশ দিয়েছ এই মর্মে সাক্ষি দিতে যে আল্লাহ ব্যতিত কোন মাবুদ নেই এবং তুমি আল্লাহর প্রেরিত রাসূল, আমরা মেনে নিয়েছি, এরপর নির্দেশ দিলে পাঁচ ওয়াক্তের নামায আদায় ও যাকাত দান করার জন্য অতপর রোজা রাখা ও হজ্জ আদায় করতে, আমরা সেটাও মেনে নিয়েছি, তবুও তুমি সন্তুষ্ট না হয়ে এখন নিজের চাচাতো ভাইয়ের হাত উচু করে আমাদের অপেক্ষা তাকে ফজিলত ও প্রাধান্য দিয়ে বললে: আমি যার মাওলা এই আলী তার মাওলা, এটাও কি আল্লাহর আদেশ না কি তোমার নিজের কথা? 
নবী করিম (স) বললেন: সেই আল্লাহকে সাক্ষী করে বলছি যিনি ছাড়া কোন মাবুদ নেই এই আদেশটিও আল্লাহরই আদেশ।
তখন হারেছ রাগান্বিত হয়ে মুখ ঘুরিয়ে নিয়ে চলে যাবার সময় বলে: হে আল্লাহ যা কিছু সে বলছে তা যদি সত্যি হয় তবে আসমান থেকে একটি পাথর আমার মাথায় পড়ুক বা অন্য কোন আযাব আমাকে দাও।
 হারেছ তখনও তার ঘোড়ার কাছে পৌছাতে পারেনি তার আগেই আসমান থেকে একটি পাথর তার মাথায় নিক্ষেপ হয় ও তার দেহের নিচের অংশ থেকে বের হয় এবং সে মারা যায়।
 এই সময় আল্লাহ রাব্বুল আলামীন এই আয়াত নাযিল করেন: 
"سال سائل بعذاب واقع، للکفرین لیس له دافع" 
  (সূরা মাআরেজের প্রথম আয়াত)
সূত্র: কিতাব ও সুন্নতের আলোকে আহলে বাইতের (আ:) পরিচিত
তাফসীরে কাশ্শাফ ওয়াল বায়ান, তাফসীরে অলুসী, তাফসীরে কোরতাবী, ফাতহুল বায়ান ফি মাকাছিদুল কোরআন ও ...অনুযায়ী।
এই প্রত্যাশাই যে আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে নবী করিম (স) ও আমিরুল মুমীনিন মাওলা আলী (আ:) এর প্রকৃত অনুসারী হবার তৌফিক দান করুন।
আল্লাহুম্মা সাল্লে আলা মুহাম্মাদ ওয়া আলে মুহাম্মাদ।